১৩:৫৯:২৯

সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় মানবাধিকার ও আইনের শাসন গুরুত্বর্পূণ

শুনুন /

মানবাধিকারের স্বীকৃতি এবং আইনের শাসন সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় খুবই গুরুত্বর্পূণ বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যন্টোনিও গুতেরেস।

মি গুতেরেস গত বৃহস্পতিবার ষোলোই নভেম্বর যুক্তরাজ্যের রাজধানীতে ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের স্কুল অব ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজে এক বক্তৃতায় একথা বলেন।

জাতিসংঘ মহাসচিব জানান গত বছর বিশ্বে সন্ত্রাসবাদী হামলায় পঁচিশ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে এবং আহত হয়েছেন আরো তেত্রিশ হাজার।

তিনি বলেন সবার নজর যদি থাকে পাশ্চাত্যের ঘটনাগুলোর দিকে, কিন্তু এসব সন্ত্রাসী হামলার অধিকাংশই ঘটেছে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে।

মি গুতেরেস মৌলিক অধিকার অস্বীকার করার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের যোগসূত্রের বিষয়টির ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

মি গুতেরেস বলছিলেন যে এক দেশ থেকে আরেক দেশে সহিংসতায় র‌্যাডিকালাইজেশনের ভূমিকায় যদিও তারতম্য আছে, কিন্তু এমনকি একই দেশের মধ্যে সন্ত্রাসবাদ শক্তি লাভ করে ক্ষোভ, অপমান এবং শিক্ষার অভাব থেকে। কথা বলার স্বাধীনতা বা ভোট দেওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত মানুষের সামনে যখন হতাশা বা নৈরাশ্য ছাড়া আর কিছুই থাকে না তখন সন্ত্রাসবাদ বিকাশ লাভ করে। এটি হতাশা এবং অসহায়ত্বের মধ্যেই গভীরভাবে প্রোথিত হয়। আর সে কারণে মানবাধিকার – সবরণের মানবাধিকার – রাজনৈতিক এবং নাগরিক অধিকার, অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক অধিকারগুলোই সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার সমাধানের প্রশ্নাতীত অংশ।

জাতিসংঘ প্রধান সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় পাঁচটি অগ্রাধিকারের কথা তুলে ধরেন। এগুলো হচ্ছে জোরালো আন্তর্জাতিক সহযোগিতা, প্রতিকারের দিকে গুরুত্ব দেওয়া, মানবাধিকারের সুরক্ষা, আইনের শাসন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের কথা শোনা।

তিনি বলেন সন্ত্রাসবাদ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। কোনো কারণ কিম্বা কোনো অভিযোগ দিয়েই এর যৌক্তিকতা প্রমাণ করা যায় না।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন