২২:৩১:০৩

রাখাইনে ত্রাণকর্মীদের প্রবেশাধিকার দাবি জাতিসংঘের

শুনুন /

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ রাখাইন রাজ্যে জাতিসংঘ এবং তার শরীক মানবিক সহায়তাকারীদের অবাধ প্রবেশাধিকার দেওয়ার জন্য মিয়ানমারের প্রতি দাবি জানিয়েছে।

সোমবার ৬ নভেম্বর নিরাপত্তা পরিষদ সভাপতির এক বিবৃতিতে রাখাইন রাজ্যে আন্তসাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিবরণে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

গত অগাস্টের পর থেকে ঐ সহিংসতার কারণে রাখাইন রাজ্য থেকে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন।

বিবৃতিতে একটি নিষ্ঠুর জাতিগত নিধন অভিযানের সমতুল্য নিরাপত্তা তৎপরতার জন্য অভিযুক্ত মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানানো হয়।

একইসাথে শরণার্থীদের স্বেচ্ছায় নিরাপদ এবং মর্যাদার সঙ্গে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সুযোগ দেওয়ার কথাও বিবৃতিতে বলা হয়।

নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতি হলেন ইতালির রাষ্ট্রদূত সেবাস্তিয়ান কার্ডি।

রাষ্ট্রদূত কার্ডি বলছিলেন যে মানবিক চাহিদা বর্তমান সংস্থানের চেয়ে অনেক বেশি, যা জাতিসংঘ এবং তার শরীক মানবিক সংস্থাগুলোকে রাখাইন রাজ্যে মানবিক সহায়তা প্রদানে অবিলম্বে নিরাপদ ও অবাধ প্রবেশাধিকার দেওয়া এবং ত্রাণকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে মিয়ানমার সরকারের কাছে দাবি রাখে।

মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধি ঐ বিবৃতির পর নিরাপত্তা পরিষদের উদ্দেশ্যে বলেন যে বিবৃতিতে মিথ্যা ভাষ্য দেওয়া হয়েছে।

মিয়ানমারের ওপর অন্যায়ভাবে রাজনৈতিক চাপ তৈরি করা হচ্ছে দাবি করে তিনি বলেন এই বিবৃতি শুধুমাত্র উত্তেজনাই বাড়াবে।

তবে, বৃহস্পতিবার নয়ই নভেম্বর জাতিসংঘ জানিয়েছে যে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে মানবিক সহায়তা সংস্থাগুলোকে সরকার এখনও কোনো প্রবেশাধিকার দেয় নি। জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিচ নিউইয়র্কে সাংবাদিকদের একথা জানান।

মি ডুজারিচ বলছিলেন যে মহাসচিব রাখাইন রাজ্যসহ মিয়ানমারে ত্রাণকর্মীদের অবাধ প্রবেশাধিকার দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এবং আমরা যাদের সহায়তা প্রয়োজন তাদের কাছে পৌঁছানোর ব্যবস্থা বাস্তবায়নের জন্য সরকারকে এখনও উৎসাহিত করে চলেছি। প্রবেশাধিকার বিষয়ক সীমাবদ্ধতার কারণে উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইনে  স্বাধীনভাবে ত্রাণচাহিদা নিরুপণ জাতিসংঘের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।

রেডক্রস ঐ রাজ্যের প্রধানত মুসলমান রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ছয় লাখ শরণার্থীর মধ্যে ত্রাণ কার্য্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন