১৫:২৬:২৪

নির্বিচার হামলা অবিলম্বে বন্ধের জন্য মহাসচিব বানের আহ্বান

শুনুন /

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেছেন যে ইজরায়েলে হামাসের নির্বিচার রকেট নিক্ষেপ এবং ইজরায়েলের প্রতিশোধমূলক কার্য্যক্রম অবিলম্বে বন্ধ হওয়া প্রয়োজন।

বান কি মুন বৃহস্পতিবার বলেন যে ইজরায়েল-ফিলিস্তিনী সংঘাতে বেসামরিক জনগণের 'ভয়াবহ দূর্ভোগ' নি:সন্দেহে বৃদ্ধি পাবে।

বৃহস্পতিবারের মানবিক বিরতিকে সংঘাতে লিপ্ত পক্ষগুলো স্থায়ী যুদ্ধবিরতির রুপ দিতে না পারায় তিনি তাঁর হতাশা প্রকাশ করেন।

একটি সাময়িক অস্ত্রবিরতির ফলে গাযার হাজার হাজার লোক বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির কাছ থেকে জরুরি ত্রাণ লাভে সক্ষম হয়েছেন।

রকেট নিক্ষেপ পুনরায় শুরু হওয়া এবং বৃহস্পতিবার গাযায় ইজরায়েলী স্থল অভিযান সূচিত হওয়ায় হাজার হাজার বিসামরিক লোক বাস্তুচ্যূত হয়েছেন।

ফিলিস্তিনীদের সহায়তাদানকারী জাতিসংঘ সংস্থা, ইউ এন আর ডাব্লু এ বলছে যে তারা গাজা ভুখন্ডে চৌত্রিশটি জরুরি আশ্রয়শিবির স্থাপন করেছে।

সংস্থা জাতিসংঘের স্থাপনা ও সম্পদের অলঙ্ঘনীয়তা মেনে চলার জন্য সবপক্ষের প্রতি আহ্বান জানায়।

মালয়েশীয় বিমান ধ্বংসের বিষয়ে র্পূণাঙ্গ ও স্বচ্ছ্ব আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান

মালয়েশীয় এয়ারলাইন্সের বৃহস্পতিবার ভূপাতিত হওয়া বিমানটির বিষয়ে একটি 'র্পূণাঙ্গ ও স্বচ্ছ্ব' আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন। এক বিবৃতিতে তিনি এই আহ্বান জানান।

আমষ্টারডাম থেকে কুয়ালালামপুরগামী বোয়িং সেভেন সেভেন সেভেন বিমানটি র্পূব ইউক্রেনে রুশ সীমান্তের কাছে ভূপাতিত হয়। বিভিন্ন খবরে বলা হয় যে বিমানটি ২৯৫ জন যাত্রী বহন করছিলো।

জাতিসংঘ প্রধান বলেন যে তিনি আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান পরিবহন সংস্থার সাথে এবিষয়ে বিভিন্ন রির্পোট ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষন করছেন।

তিনি নিহতদের পরিবার ও প্রিয়জন এবং মালয়েশীয় জনগণের প্রতি তাঁর সমবেদনা জানান।

২৩৯ জন যাত্রী নিয়ে মালয়েশীয় এয়ারলাইন্সের আরেকটি বিমান এফ এইচ থ্রি সেভেন্টি কুয়ালালামপুর থেকে উড্ডয়নের অল্পসময় পরে নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার মাত্র কয়েকমাস পর এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটলো।

শিশুদের মোটা হয়ে যাওয়ায় তৈরি হচ্ছে বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংকট

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ডাব্লু এইচ ও বলছে যে উন্নয়নশীল দেশগুলোর অনেকটিতেই শিশুদের স্থুলকায় বা মোটা হয়ে যাওয়া দ্রুততার সাথে একটি স্বাস্থ্যগত সংকটের রুপ নিচ্ছে।

সংস্থা বলছে যে ১৯৯০ যেখানে বিশ্বে মোটা বা বেশি ওজনের শিশুর সংখ্যা ছিলো তিন কোটি দশ লাখ এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে চার কোটি চল্লিশ লাখে এবং এরমধ্যে উন্নত দেশের তুলনায় উন্নয়নশীল দেশে এই বৃদ্ধির হার শতকরা ত্রিশ ভাগ বেশি।আফ্রিকায় প্রায় এক কোটি শিশু মোটা বা তাদের ওজন বেশি।

এই সমস্যা মোকাবেলায় প্রথমবারের মতো গঠিত কমিশন অন এন্ডিং চাইল্ডহুড ওবিসিটির কার্য্যক্রম সম্পর্কে জানান সংস্থার র্কমকর্তা ড্যান এপিষ্টোন।

ড্যান এপিষ্টোন বলেন যে এই কমিশন শিশুদের স্থূলকায় হয়ে যাওয়ার পিছনে সম্ভাব্য কি কি কারণ রয়েছে তা খুঁজে দেখবে।ডাব্লু এইচ ও'র জবাব হচ্ছে খাদ্যাভ্যাস, শারীরিক সক্রিয়তা বৃদ্ধি এবং স্বাস্থ্যগত বিষয়ে বৈশ্বিক কৌশলে নজর দেওয়া যাতে বৈশ্বিক, আঞ্চলিক এবং স্থানীয় পর্য্যায়ে পদক্ষেপগ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে। বিশেষ করে শিশুদের লক্ষ্য করে খাদ্যদ্রব্য বাজারজাতকরণসহ কমিশন এই স্থুলকায়তার সবদিকই খতিয়ে দেখবে।কমিশন এটা কিভাবে প্রতিকার করা যায়, ক্ষতিগ্রস্ত শিশুদের অবস্থা বদলানোর উপায় এবং এসব লক্ষ্য অর্জনের সেরা উপায় নির্ধারণ করবে।

অর্ধেকেরও বেশি নারী খুন হন পরিবারেরই কারোর হাতে

বিশ্বব্যাপী হত্যাকান্ডের শিকার নারীদের অর্ধেকেরও বেশি খুন হন তাঁর পরিবারের সদস্য অথবা একান্ত সঙ্গীর হাতে। বিপরীতে, পুরুষরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে খুন হন এমন কারো দ্বারা যাঁর সাথে তাঁর আগে কখনও দেখা হয় নি।

জাতিসংঘের মাদক এবং অপরাধ বিষয়ক দপ্তর ইউ এন ও ডি সি'র সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রাতবেদনে বিশ্বব্যাপী হত্যাকান্ডের পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

এই পরিসংখ্যানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে খুনের হারে ব্যাপক তারতম্য পাওয়া যায়।

 ডিম, দুধ, মাংস ও মধু ঝুঁকিমুক্ত করতে ৮ ওষুধ নিষিদ্ধের সুপারিশ

জাতিসংঘের খাদ্য মান বিষয়ক সংস্থা, কোডেক্স অ্যালিমেন্টারিয়াস কমিশন বিশ্বব্যাপী ভোক্তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় খাদ্য উৎপাদনকারী গবাদিপশু ও প্রাণীর ক্ষেত্রে কিছু ওষুধের ব্যবহার বন্ধের সুপারিশ করেছে যাতে করে দুধ, মাংস, ডিম এবং মধুতে ঐসব রাসায়নিক উপাদানের অবশিষ্টাংশ না থাকে।

এই আটটি ওষুধ হচ্ছে  ক্লোরামফেনিকল, মেলাসিট গ্রেণ, কার্বাডক্স, ফিউরাজোলিডন, নাইট্রোফিউরাল, ক্লোরপ্রোমাজিন, ষ্টিলবেন্স এবং ওলাকিউনাডিক্স।

কমিশনের আরেকজন বিজ্ঞানী আনামারিয়া ব্রুনো প্রাণীর ক্ষেত্রে ব্যবহার্য্য এসব ওষুধের ঝুঁকি ব্যাখ্যা করেন।

মিস ব্রুনো বলেন যে যেটা গুরুত্বর্পূণ তাহোল পশুচিকিৎসার এসব ওষুধ ব্যবহারের ফলে তার কিছু অবশিষ্টাংশ শেষপর্য্যন্ত ভোক্তারা যা খাচ্ছেন তাতে যেয়ে ঠেকতে পারে।

মিস ব্রুনো বলেন যে কোডেক্সের সদস্যরা এসপ্তাহে যেসব পদক্ষেপগ্রহণের বিষয়ে সম্মত হয়েছেন তা খুবই গুরুত্বর্পূণ। কেননা, কয়েকটি নির্দিষ্ট ধরণের রাসায়নিক উপাদানের অবশিষ্টাংশ মানবদেহের জন্য খুবই ক্ষতিকর হতে পারে এবং সেকারণে তা ভোক্তাদের জন্য অনিরাপদ হিসাবে গণ্য করা উচিৎ।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন