১৮:০২:০৭

ক্রাইমিয়া সংকট নিয়ে মস্কো – কিয়েভ সংলাপের আহ্বান

শুনুন /

ক্রাইমিয়াকে কেন্দ্র করে রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে চলমান বিরোধ শুধুমাত্র শান্তির্পূণ কূটনৈতিক উপায়েই সমাধান সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কতৃক নিন্দিত রাশিয়ার ক্রাইমিয়াকে স্বরাজ্যভুক্তির পর সৃষ্ট সংকট সমাধানে সহায়তার লক্ষ্যে ওই অঞ্চল সফররত মি বান ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট ওলেকজান্ডার টুরশাইনভের সাথে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের বলেন যে ইউক্রেনের অংশবিশেষের পরিস্থিতি এবং ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যেকার উত্তেজনার বিষয়ে তিনি খুবই উদ্বিগ্ন।

মি বান বলেন যে ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব , ঐক্য এবং সীমানাগত অখন্ডতার প্রতি সম্মান দেখানোসহ জাতিসংঘ সনদের ভিত্তিতে শান্তির্পূণ কূটনৈতিক প্রক্রিয়াতেই কেবল বর্তমান সংকটের সমাধান সম্ভব। এক্ষেত্রে শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য রাষ্ট্রনায়কোচিত চেষ্টা প্রয়োজন।

মি বান বলেন যে মস্কো এবং কিয়েভের মধ্যে একটি প্রকৃত সংলাপ প্রয়োজন।

ইউক্রেন যাওয়ার আগে মহাসচিব বান মস্কো সফর করেন যেখানে তিনি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভারভের সাথে বৈঠক করেছেন।

সংখ্যালঘুরা জাতীয় ও বৈশ্বিক উন্নয়ন কার্য্যক্রম থেকে বাদ যাচ্ছেন

জাতিসংঘের একজন মানবাধিকার বিশেষজ্ঞ বলেছেন যে সংখ্যালঘু গোষ্ঠীগুলো ক্রমবর্ধমান হারে সহিংসতা এবং বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন এবং জাতীয় ও বৈশ্বিক উন্নয়ন কার্য্যক্রম থেকে বাদ পড়ছেন।

জাতিসংঘের সংখ্যালঘু বিষয়ক স্বাধীন বিশেষজ্ঞ, রিতা ইজাক বলছেন যে সংখ্যালঘুরা হচ্ছেন দরিদ্রদের মধ্যে দরিদ্রতম এবং তাঁদের অধিকাংশই তাঁদের বিদ্যমান অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে অক্ষম। তাঁদের উদ্দেশ্যে বিশেষধরণের সহায়তা ছাড়া তাঁরা এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে পারছেন না।

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের অধিবেশনে মিস ইজাক বলেন যে সংখ্যালঘুদের অবস্থার প্রতি বিশেষ দৃষ্টি না দেওয়ার বিষয়টি জাতিসংঘের সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা মিলেনিয়াম ডেভলেপমেন্ট গোল (এমডিজি)'র সবচেয়ে বড় দূর্বলতা।

আন্তর্জাতিক আদালতে ইজরায়েলী দখলদারির বৈধতা বিচারের আহ্বান

অধিকৃত ফিলিস্তিনী অঞ্চলগুলোর মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ক জাতিসংঘের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার, রির্চাড ফালক্ শুক্রবার ফিলিস্তিনে দীর্ঘায়িত ইজরায়েলী দখলদারিত্বের আইনগত অবস্থা বিবেচনার জন্য আন্তর্জাতিক আদালতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিনে ইজরায়েলী দখলদারিতে ' আইনগতভাবে ঔপনিবেশিকতা, বর্ণবাদ এবং জাতিগত শুদ্ধিকরণ এর অগ্রহণযোগ্য বৈশিষ্ট্যগুলো' রয়েছে বলে যেসব অভিযোগ আছে সেগুলোও আন্তর্জাতিক আদালতের বিচার করা উচিৎ বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মি ফালক্ বলেন যে স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার হিসাবে তাঁর ছয় বছরের দায়িত্বপালনকালে ফিলিস্তিনে বাস্তব পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটেছে।

মি ফালক্ বলেন যে সেখানে বসতিনির্মাণের সংখ্যা বেড়েছে, জেরুজালেমের জনতাত্ত্বিক গঠনপ্রকৃতি বদলে গেছে, গাযার জনগোষ্ঠীকে সমবেতভাবে শায়েস্তা করা অব্যাহত আছে, ঘরবাড়ি ধ্বংস করা এবং ইজরায়েলী বাহিনীগুলোর মাত্রাতিরিক্ত শক্তিপ্রয়োগ – এসবকিছুই আন্তর্জাতিক আইনের দৃষ্টিতে আপত্তিকর এবং সেগুলোর সবই অব্যাহত ছিলো এবং আমার ছয়বছরে তা আরো তীব্রতর হয়েছে।

মি ফালক্ আগামী ২৪ র্মাচ জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে তাঁর সর্বসাম্প্রতিক প্রতিবেদন পেশ করবেন বলে কথা রয়েছে।

টেকসই উন্নয়নে পানি ও জ্বালানি উভয়ই গুরুত্বর্পূণ

পানি এবং জ্বালানির মধ্যেকার গভীর সর্ম্পকের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে ২২শে র্মাচ, এবছরের বিশ্ব পানি দিবসের নানা আয়োজনে।

যেকোনধরণের জ্বালানি উৎপাদনে প্রয়োজন হয় পানি। আবার পানি উত্তোলন, পরিশোধন এবং বিতরণের সব পর্যায়েই জ্বালানি প্রয়োজন।

বিশ্ব পানি দিবস এর প্রাক্কালে প্রকাশিত জাতিসংঘের বিশ্ব পানি উন্নয়ন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে পানি এবং জ্বালানি উভয়েই মানুষের কল্যাণ এবং টেকসই উন্নয়নের জন্য অতীব গুরুত্বর্পূণ। প্রতিবেদনে বলা হয় যে এই দুটি খাতের বিষয়ে উন্নত জ্ঞান অপচয় হ্রাস এবং উন্নততর নীতি প্রণয়নে সহায়ক।

রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীর সংখ্যা এক দশকের মধ্যে সর্ব্বোচ্চ

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা, ইউ এন এইচ সি আর বলছে যে ২০১৩ সালের শিল্পোন্নত দেশগুলোতে রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীর সংখ্যা প্রায় এক-তৃতীয়াংশ পরিমাণে বেড়েছে।

যুদ্ধ এবং সংঘাত এড়াতে অধিক হারে সিরীয় নাগরিকরা দেশ ছাড়তে থাকায় এই সংখ্যা বাড়ছে জানিয়ে সংস্থা বলেছে যে ২০০১ সালের পর গতবছরটিতেই সবচেয়ে বেশি রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থনার ঘটনা ঘটেছে।

এসব আশ্রয়প্রার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশিসংখ্যায় রয়েছেন সিরিয়া, রুশ ফেডারেশন, আফগানিস্তান, ইরাক, সার্বিয়া, পাকিস্তান, ইরান, সোমালিয়া, ইরিত্রিয়া এবং চীনের নাগরিকরা।

ইউএনএইচসিআর জানায় যে আশ্রয়প্রার্থনার আবেদন গ্রহণের ক্ষেত্রে ঐসব দেশের নাগরিকদের প্রাধান্য দেখা যাচ্ছে যেখান থেকে সংঘাতের কারণে লোকজন পালিয়ে আসছেন।

সংস্থা জানায় শিল্পোন্নত দেশগুলোর মধ্যে জার্মানি সর্বাধিক ১০৯,৬০০, যুক্তরাষ্ট্র ৮৮,৪০০ এবং ফ্রান্স ৬০,১০০ জনকে আশ্রয় দিয়েছে।

ফ্যাশনের জন্য বন এবং বনের জন্য ফ্যাশন

বনাঞ্চল এবং ফ্যাশন আপাতদৃশ্যে দুটি আলাদা জগত বলে মনে হলেও জাতিসংঘের একজন জৈষ্ঠ্য বনায়ন বিশেষজ্ঞ বলছেন যে এরা একে অন্যের সাথে সর্ম্পকিত।

চলতি বছরে একুশে র্মাচ আন্তর্জাতিক বন দিবস উপলক্ষ্যে ফ্যাশনের জন্য বন এবং বনের জন্য ফ্যাশন নামে একটি উদ্যোগ সূচিত হয়েছে।

নতুন বনজ পণ্য পরিবেশবান্ধব অর্থনীতিতে যেমন অবদান রাখতে পারে তেমনই তা সামর্থ্যের মধ্যে এবং ফ্যাশনউপযোগী হতে পারে এই বক্তব্য তুলে ধরাই হচ্ছে উদ্যোগটির উদ্দেশ্য।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন