১৩:৫২:১১

রেকর্ডের উষ্ণতম দশটি বছরের অন্যতম ছিল ২০১৩: ডাব্লু এম ও

শুনুন /

বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা, ডাব্লু এম ও বলছে যে ১৮৫০ সালের পর থেকে বিশ্বের উষ্ণতম দশটি বছরের অন্যতম হচ্ছে ২০১৩ সাল।তথ্য বা রেকর্ড সংরক্ষণের আধুনিক ব্যবস্থা চালু হয় ১৮৫০ সালে।

এই সময়ে বৈশ্বিক স্থল এবং সমুদ্রপুষ্ঠের তাপমাত্রা ১৯৬১ থেকে ১৯৯০ সালের গড়ের চেয়ে শূণ্য দশমিক পাঁচ শূণ্য সেন্টিগ্রেড বেশি ছিলো।

ডাব্লু এম ও বলছে যে ২০১৩ সালের বৈশ্বিক তাপমাত্রা র্দীঘদিনের উষ্ণায়নের প্রবণতার সাথে সঙ্গতির্পূণ। এই উষ্ণায়নের হার যদিও অভিন্ন নয় তবুও এর অর্ন্তনিহিত প্রবণতা অস্বীকার করার উপায় নেই।

কিছু কিছু চরম আবহাওয়াজনিত পরিস্থিতি ভূপৃষ্ঠের উষ্ণায়নের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত উল্লেখ করে ডাব্লু এম ও'র মহাসচিব মিশেল জারু বলেন যে র্দীঘমেয়াদী জলবায়ূ পরিবর্তনের সাথে ভূপৃষ্ঠের তাপমাত্রা বৃদ্ধির সর্ম্পকটি সবচেয়ে সরাসরি।

মিশেল জারু বলেন যে আমরা দেখছি যে পৃথিবীর তাপমাত্রা বাড়ছে, কিন্তু তা অবশ্যই সবজায়গায় সমান  নয়। এমন জায়গা আছে যেখানে আপনি র্রেকড তাপমাত্রা এবং র্রেকড তাপপ্রবাহ দেখছেন, যেমন অষ্ট্রেলিয়ায় ২০১৩ সাল উষ্ণতম বছর হিসাবে রেকর্ড করেছে।

মিশেল জারু বলেন যে আমরা যদি বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির পরিমাণ দুই শতাংশের নিচে সীমিত রাখতে চাই তাহলে ক্ষতিকর গ্যাস নির্গমনের হার উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমাতে দ্রুত এবং সাহসী পদক্ষেপ নিতে হবে।

মিশেল জারু বলেন যে অন্য কাজটি হবে খাপ খাওয়ানোর ব্যবস্থা। কেননা, আমরা গ্যাস নিঃসরণের হার কমালেও কিছু র্নিদিষ্টমাত্রায় উষ্ণায়ন আমরা এড়াতে পারবো না। ফলে, দেশগুলো এবং জনগোষ্ঠীগুলোকে ওই অবস্থার সাথে খাপ খাইয়ে নিতে হবে।

মিশেল জারু বলেন যে সুতরাং, ‍উষ্ণায়নের মাত্রা কমানো এবং পরিস্থিতির সাথে খাপ খাওয়ানো এই দুটো কাজই আমাদের পাশাপাশি করতে হবে।

মিশেল জারু বলেন যে উষ্ণায়ন নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে আমাদেরকে যেমন সাহসী পদক্ষেপ নিতে হবে, তেমনি একইসাথে ইতোমধ্যে উষ্ণায়ন বৃদ্ধির যেসব কারণ ঘটেছে তার প্রভাব মোকাবেলায় আমাদেরকে গুরুত্বর্পূণ পদক্ষেপ নিতে হবে এবং সেজন্যে উল্লেখযোগ্য পরিমানে সম্পদ প্রয়োজন হবে।

ডাব্লু এম ও বলছে যে রেকর্ডের চৌদ্দটি উষ্ণতম বছরের তেরোটিই ছিলো একুশ শতকে।

রেকর্ডে সবচেয়ে উষ্ণতম বছর ছিলো ২০১০ এবং ২০০৫ সাল, যখন বৈশ্বিক তাপমাত্রা গড়ের চেয়ে শূণ্য দশমিক পাঁচ শূণ্য ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড বেশি ছিলো।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন