১৬:৩১:০৭

সিরিয়া প্রশ্নে আলোচনায় সামান্য অগ্রগতি হয়েছে: ব্রাহিমী

শুনুন /

জাতিসংঘ ও আরব লীগের বিশেষ দূত, লাখদার ব্রাহিমী বলেছেন যে জেনেভায় সিরীয় সরকার ও বিরোধী গোষ্ঠীগুলোর প্রতিনিধিদের সাথে তাঁর আলোচনায় সামান্য কিছু অগ্রগতি হয়েছে। দুই পক্ষ মুখোমুখি বসলেও তাঁরা সরাসরি একে অন্যের সাথে কথা বলেন নি।

মি ব্রাহিমী জানান যে শনিবারের আলোচনা মূলত কেন্দ্রীভূত ছিলো হমস শহরে আটকে পড়া হাজার হাজার বেসামরিক নাগরিকদের কাছে মানবিক সহায়তা পৌঁছানোর বিষয়ে।

তিনি জানান যে খাদ্য এবং খাদ্য ছাড়াও জরুরি সামগ্রী এবং চিকিৎসাসামগ্রীর একটি সরবরাহ কনভয় তৈরি আছে এবং তিনি আশা করছেন যে অচিরেই ওই কনভয়কে হমসে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

তিনি আরো জানান যে রোববারের আলোচনায় থাকছে সরকার এবং বিরোধী গোষ্ঠীগুলোর হাতে আটক বন্দীদের বিষয়।

মি ব্রাহিমী বলেন যে সিরীয় শান্তি আলোচনার ভিত্তি হচ্ছে ২০১২'র জুন মাসে গৃহীত জেনেভা ঘোষণা ।

উন্নয়নশীল দেশে কিশোরীদের উন্নয়নে বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন বলেছেন যে উন্নয়নশীল দেশের কিশোরীদের উন্নয়নে বিনিয়োগ সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) অর্জনের অগ্রযাত্রাকে গতিশীল করতে পারে।

সুইৎজারল্যান্ডের ডাভোসে ওর্য়াল্ড ইকোনমিক ফোরামের এক অনুষ্ঠানে মি বান বলেন যে এমডিজি অর্জনের জন্য আর মাত্র সাতশো দিনের মতো রয়েছে।

চরম দারিদ্র ও নারী পুরুষের বৈষম্য দূর করার লক্ষ্যে দুই হাজার সালে বিশ্বনেতারা এমডিজি'র লক্ষ্যমাত্রাগুলো ঠিক করেছিলেন। মি বান বলেন যে বিশ্বনেতাদের এখন এর অগ্রগতি পর্যালোচনা করা প্রয়োজন।

মি বান বলেন যে এমডিজি'র এজন্ডাগুলোতে অগ্রগতি অর্জনের জন্য বিনিয়োগে গতিসঞ্চার করা প্রয়োজন তার জন্য উন্নয়নশীল দেশগুলোতে প্রায় পঞ্চাশ কোটি কিশোরীর উন্নয়নে বিনিয়োগ আবশ্যক।একজন কিশোরীকে উন্নত স্বাস্থ্য, শিক্ষা এবং তার জন্য কল্যাণকর চাহিদাগুলো পূরণ করতে পারলে আমরা দেখি তার সুফল সেই ব্যাক্তিকে ছাড়িয়ে যায়।

মি বান বলেন যে একটি বনে একটি গাছ যেমন মূল্যবান আমাদের বিশ্বে একজন কিশোরীও তেমন মূল্যবান।

ইরানের পরমাণূ কার্য্যক্রমে তদারকি বাড়াবে আইএইএ

জাতিসংঘ পরমাণূ সংস্থা আইএইএ'র মহাপরিচালক, ইউকিয়া আমানো অষ্ট্রিয়ার ভিয়েনায় শুক্রবার সংস্থার পরিচালনা পরিষদকে বলেছেন যে ইরান যে তার পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি যে আর পরিচালনা করছে না তা যাচাইয়ের জন্য সংস্থাকে তার কার্য্যক্রম বাড়াতে হবে।

তিনি সংস্থার পরিচালনা পরিষদকে স্মরণ করিয়ে দেন যে ২০১৩ সালের ২৪শে নভেম্বর চীন, ফ্রান্স, জার্মানী, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সাথে একটি যৌথ কর্মপরিকল্পনায় সম্মত হয়েছে।

মি আমানো বলেন যে এই পরিকল্পনার আওতায় আইএইএ'র দায়িত্ব হচ্ছে ইরান যেসব পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে সেগুলো পর্য্যবেক্ষন ও যাচাই করা।

ক্ষুধাশূণ্য বিশ্ব গড়া সবার দায়িত্ব: বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি, ডাব্লু এফ পি সুইৎজারল্যান্ডের ডাভোসে ওর্য়াল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সভায় দশম বছরের মতো অংশ নিয়ে বুধবার এক বার্তায় বলেছে যে বিশ্বব্যাপী ক্ষুধার অবসান ঘটানোয় সরকারী ও বেসরকারী খাত উভয়েরই ভূমিকা গ্রহণ প্রয়োজন।

অনুমান করা হয় যে বিশ্বে প্রায় চুরাশি কোটি মানুষ ক্ষুধা ও পুষ্টিহীনতার শিকার।

জাতিসংঘ তার জিরো হাঙ্গার চ্যালেঞ্জ কার্য্যক্রমে আমাদের জীবদ্দশায় বিশ্বকে ক্ষুধামুক্ত করার পক্ষে প্রচারণা শুরু করেছে।

ডাব্লু এফ পি'র মুখপাত্র এলিজাবেথ বার্য়াস বলেন যে পুষ্টিহীনতা বা অপর্য্যাপ্ত পুষ্টি শুধুমাত্র একটি স্বাস্থ্যগত সমস্যা নয়, একটা অর্থনৈতিক সমস্যাও বটে।সেকারণেই সব দেশ, সব কোম্পানি, বৃহৎ কোম্পানি এই চ্যালেঞ্জের অংশীদার।

ডাব্লু এফ পি বলছে ক্ষুধামুক্তির জন্য বাণিজ্যিক যৌক্তিকতা খুবই জোরালো ।

টেকসই উন্নয়নের জন্য জলবায়ূ পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলা প্রয়োজন: বান

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন বলেছেন যে টেকসই উন্নয়নের জন্যই জলবায়ূ পরিবর্তনের বিষয়টি মোকাবেলা প্রয়োজন।

জলবায়ূ পরিবর্তনের বিষয়ে শুক্রবার সুইৎজারল্যান্ডের ডাভোসে ওর্য়াল্ড ইকোনমিক ফোরাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মি বান বলেন জলবায়ূ পরিবর্তনের বিষয়টি বহু বছর ধরেই বৈশ্বিক আলোচনায় রয়েছে, কিন্তু 'জাতীয় র্স্বাথকেন্দ্রিক মতপার্থ্যকের' কারণে তা মোকাবেলার প্রশ্নে 'সন্তোষজনক অগ্রগতি' অর্জিত হয় নি।

মি বান বলেন যে জলবায়ূ পরিবর্তনের কারণে বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি এবং সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের সামর্থ্য ক্ষতিগ্রস্ত হবে না বলেও একটা ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে।

ভূমি ব্যবহারের অসহনীয় হার খাদ্য নিরাপত্তার জন্য হুমকি: ইউএনইপি

অসহনীয় হারে ভূমি ব্যবহারের যে প্রবণতা বর্তমানে চালু রয়েছে তা যদি অব্যাহত থাকে তাহলে ২০৫০ সাল নাগাদ শত কোটি হেক্টর প্রাকৃতিক জমির গুণগত মান ক্ষতিগ্রস্ত হবে, যার আয়তন প্রায় ব্রাজিলের সমান।

সুইৎজারল্যান্ডের ডাভোসে অনুষ্ঠিত ওর্য়াল্ড ইকোনমিক ফোরামে প্রকাশিত জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি, ইউনাইটেড নেশন্স এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম, ( ইউ এন ই পি)'র এক রির্পোটে একথা বলা হয়।

সংস্থা বলছে যে বিশ্বজুড়ে ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠীর খাদ্যের চাহিদা মেটাতে বিশ্বের বনাঞ্চল, তৃণভূমি এবং উষ্ণমন্ডলীয় বৃক্ষহীন তৃণভূমি অধিকহারে কৃষিজমিতে রুপান্তরিত হচ্ছে।

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন