১৯:৩৬:৫৯

জলবায়ু পরিবর্তন তহবিলে অর্থায়ন নিশ্চিত করতে শেখ হাসিনার আহ্বান

শুনুন /

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে বিশ্বনেতাদের কাছে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর আন্তর্জাতিক বাজারে শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত পণ্যের প্রবেশাধিকার, বিশ্বব্যাপী শ্রমিকদের অবাধ যাতায়াত এবং উন্নয়ন সহায়তার অঙ্গীকার পূরণের আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন তহবিলে পর্যাপ্ত অর্থায়ন নিশ্চিত করতে উন্নয়ন সহযোগীদের দায়িত্বের কথাও স্মরণ করিয়ে দেন।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশের অনেক অর্জন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বাংলাদেশকে বৈশ্বিক উষ্ণায়ন ও সমুদ্রের পানির স্তর বেড়ে যাওয়ার অভিঘাত মোকাবেলা করতে হচ্ছে। সমুদ্রের পানির স্তর ১ মিটার বাড়লে বাংলাদেশের প্রায় এক-পঞ্চমাংশ পানিতে তলিয়ে যাবে। এর ফলে প্রায় ৩ কোটি মানুষ বাস্তুহারা হবে এবং অন্য কোথাও আশ্রয় নিতে বাধ্য হবে।

শেখ হাসিনা বলেন যে ব্রেটন উডস্ ইনস্টিটিউশনস ও আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে মতপ্রকাশে সমান অধিকার এবং জিএটিএস অনুযায়ী বিশ্বব্যাপী শ্রমিকদের অবাধ যাতায়াতের নিশ্চয়তা দিতে হবে।

২০২১ এর মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার পরিকল্পনা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, তার সরকারের লক্ষ্য এমডিজি'র সাথে তাল মিলিয়ে জাতীয় কর্মকৌশল প্রণয়ন করে রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা।

বাংলাদেশকে এখন 'অর্থনৈতিক উন্নয়নের মডেল' এবং 'দক্ষিণ এশিয়ার মান বাহক' হিসাবে চিহ্নিত করা হয় উল্লেখ করে শেখ হাসিনা তাঁর ভাষণে দেশের উন্নয়নে তার সরকারের বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা ও পদক্ষেপ তুলে ধরেন।

জাতিসংঘ রেডিওতে বাংলা অনুষ্ঠান চালুকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসাবে ঘোষণা দেয়ারও আহ্বান জানান।

জাতিসংঘের শান্তি মিশনে বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ সংখ্যক সৈন্য প্রেরণকারী দেশ হিসাবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, 'আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমাদের ভূমিকা ন্যায় ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ওপর প্রতিষ্ঠিত যা বিশ্বশান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করে এবং নিরস্ত্রীকরণকে সমর্থন করে।'

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'এই বিচারকাজ পরিচালনায় সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করা হয়েছে।' যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে তিনি বিশ্ব নেতাদের সমর্থন চান।

 

Loading the player ...

সংযোগ বজায় রাখুন